বাংলাদেশ সেনাবাহিনী শান্তিরক্ষার নাম ধর্ষণে লিপ্ত

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী হাইতিতে শত শত নারী ও কন্যা শিশুদের ধর্ষণ করেছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। খাদ্য ও ওষুধপত্রের বিনিময়ে তাদের সঙ্গে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হতে বাধ্য করেছে শান্তিরক্ষীরা। এমন নির্যাতিত কপক্ষে দুই শতাধিক নারীর খোঁজ তাওয়া গেছে যাদের এক তৃতীয়াংশেরও বেশীর বয়স ১৮ বছরের কম, অনেকের ক্ষেত্রে আরও অনেক কম। হাইতির ২৩১ জন নারী ও শিশুর সাক্ষৎকার নিয়ে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

জাতিসংঘ অফিস অব ইন্টারনাল ওভারসাইট সার্ভিস বা ওআইওএস’এর এক প্রতিবেদনে শান্তিরক্ষী বাহিনীর দায়িত্বে নিয়োজিত সদস্যদের অনৈতিক আচরণের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। চলতি মাসে এ প্রতিবেদন প্রকাশের কথা রয়েছে এবং প্রতিবেদনের একটি অনুলিপি সংগ্রহ করতে পেরেছে মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি।
হাইতিতে শান্তিরক্ষী বাহিনীর এ নোংরা এবং অনৈতিক তৎপরতা কোন কোন বছরে ঘটেছে জাতিসংঘের প্রতিবেদনে তা তুলে ধরা হয় নি। অবশ্য, ২০০৪ সাল থেকে দেশটিতে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর ৭,০০০ সেনা মোতায়েন রয়েছে এবং বিভিন্ন সময় তাদের অনৈতিক কাজের প্রতিবাদে হাইতিবাসী প্রতিবাদ বিক্ষোভ করেছে। এমন কি শান্তিরক্ষী প্রত্যাহারেরও দাবী জানিয়েছে। তাদের প্রতিবাদ বিক্ষোভের কেন্দ্রে ছিল মার্কিন সেনারা।

You may also like...

4 Responses

  1. মজনু রহমান says:

    তোরে গুম করে ফেলবো

  2. জসীম পাটোয়ারি says:

    তুই হলি পাকি বীর্যের জারজ সন্তান তাই তুই দেশের সম্মানিত সেনাবাহিনী নিয়ে এভাবে মিথ্যাচার করতে পারলি

  3. গিয়াস উদ্দিন says:

    সেনাবাহিনীকে নিয়ে মিথ্যাচার করতে আপনার অন্তর কাঁপে না? সেনাবাহিনীর কাছে আমার অনুরোধ থাকবে আপনাকে কখনো সামনে পেলে যেন ব্রাশ ফায়ার করে মেরে ফেলে

  4. Karim Hasan says:

    tor moto pagla kuttader guli kore mere fela uchit

Leave a Reply

Read previous post:
বাংলাদেশী সেনা সদস্যরা বিদেশে শান্তি রক্ষায় নয় নারী কেলেঙ্কারী তে ব্যস্ত

হাইতিতে নিয়োজিত জাতিসংঘ শান্তি রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে সেখানকার অসংখ্য মেয়ে শিশু এবং নারীদের ধর্ষণের গুরুতর অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে। সূত্রমতে, জরুরী...

Close